বিএনপিকেও আমন্ত্রণ জানানো হবে মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে – কাদের

0
368

বৃহস্পতিবার দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে ‘মুজিববর্ষ’ উদযাপন জাতীয় কমিটির সঙ্গে আওয়ামী লীগের মতবিনিময় সভা শেষে প্রেস ব্রিফিংয়ে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন। আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ ছাড়াও ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ ও সহযোগী-ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক এবং মহানগরের অন্তর্গত দলের সংসদ সদস্যরা এ সভায় যোগ দেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিববর্ষের’ অনুষ্ঠানে দল-মত নির্বিশেষে সবাইকে আমন্ত্রণ জানানো হবে জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, মুজিববর্ষের ক্ষণগণনা অনুষ্ঠানে বিএনপিকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। তারা আসেনি। কেন আসেনি সেটা তাদের ব্যাপার। মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানেও তাদের আমন্ত্রণ জানানো হবে। তবে কোনোভাবেই সাম্প্রদায়িক ও স্বাধীনতাবিরোধী কোনো দলকে আমন্ত্রণ জানানো হবে না।

ওবায়দুল কাদের বলেন, অনুষ্ঠানে দেশি-বিদেশি সম্মানিত অতিথিরা অংশ নেবেন। দলমত নির্বিশেষে যারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও স্বাধীনতার আদর্শে বিশ্বাস করে, তাদের সবার জন্য ‘মুজিববর্ষ’ উদযাপন উন্মুক্ত। এখানে কোনো সংকীর্নতার সুযোগ নেই। বিএনপিকে আমরা আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনেও দাওয়াত দিয়েছি। মুজিববর্ষ উদযাপন অনুষ্ঠানেও তাদের দাওয়াত করব। তারা অংশগ্রহণ করবে কিনা, সেটা তাদের বিষয়।

তিনি বলেন, মুজিববর্ষে আমরা সরকারের উন্নয়ন, সাফল্য ও অর্জন এবং দেশের ইতিহাস-ঐতিহ্য-আদর্শ ও সংগ্রামকে ফোকাস করব। দেশ-বিদেশে বাংলাদেশ হবে ব্র্যান্ড। এই বাংলাদেশ ব্র্যান্ডকে ফোকাস করা হবে। বঙ্গবন্ধু থেকে শেখ হাসিনার সময়ের ইতিহাস, সংগ্রাম, সাফল্য ও অর্জন সব কিছুই তুলে ধরা হবে। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আগামী ২২ ও ২৩ মার্চ জাতীয় সংসদের বিশেষ অধিবেশন ডাকা হবে বলে জানান তিনি।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমাদের চিন্তাভাবনা ও আইডিওলজি- এ সবকিছু নিয়ে আমরা একটা বছর সুনামগঞ্জ থেকে সুন্দরবন, টেকনাফ থেকে তেঁতুলিয়া পর্যন্ত সারাদেশে আওয়ামী লীগ এবং মুক্তিযুদ্ধের পক্ষ শক্তিকে মুক্তিযুদ্ধের মূল ধারা তথা মুজিবের ধারায় অনুপ্রাণিত ও উজ্জীবিত করব।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, প্রচার সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ূয়া, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য ইকবাল হোসেন অপু, ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান, দক্ষিণের সভাপতি আবু আহমেদ মন্নাফী, সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির, জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি ফজলুল হক মন্টু, যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল, যুব মহিলা লীগের সভাপতি নাজমা আক্তার, সাধারণ সম্পাদক অপু উকিল প্রমুখ।

মন্তব্য দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here