যে কারনে দলবেঁধে আত্মহত্যা করে এই প্রাণীরা!

0
574

জীবন যখন অর্থহীন হয়ে পড়ে, হতাশা গ্রাস করে নেয় মন, তখন কিছু মানুষ আত্মহত্যার পথ বেছে নেন। কিন্তু এই আত্মহত্যার প্রবণতা কি কেবল মানুষের মধ্যেই রয়েছে? কখনো কি এমন প্রশ্ন এসেছে মাথায়? জানেন কি কেবল মানুষ নয়, অন্য কিছু প্রাণীও আত্মহত্যা করে? আজ এমনই এক প্রাণীর কথা চলুন জেনে নিই-

এক আজব প্রাণী লেমিং। ইঁদুর প্রজাতির এই প্রাণী আত্মহত্যা করে। তাও আবার একা নয়, বরং দলবেঁধে এই কাজটি করে তারা। বুঝেশুনে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেই আত্মহত্যা করে তারা। এমনকি কে কে আত্মহত্যা করবে তাও নির্ধারণ করা হয় আগে থেকে।

লেমিংরা যখন আত্মহত্যা করে তখন তারা কোনো বাধা মানে না। তাদের কেউ আটকাতে গেলেই হিংস্র হয়ে ওঠে। যেভাবেই হোক আত্মহত্যা করে তারা। হোক তা পাহাড়-পর্বত পার হয়ে কিংবা নদ-নদী ডিঙিয়ে। এই প্রাণী স্ত্রী-পুরুষ মিলে দলে দলে আত্মহত্যা করে। এই কাজটি তারা প্রকৃতির প্রয়োজনেই করে। অবাক হচ্ছেন?

আত্মহত্যার কারণ হিসেবে জানা যায়, যখন তাদের মধ্যে খাবারের অভাব দেখা দেয়, বসবাসের স্থান অনুপযুক্ত হয়ে পড়ে কিংবা লেমিংদের সংখ্যা অস্বাভাবিক হারে বেড়ে যায় তখন তারা নিজেদের মধ্যে ভারসাম্য রাখতে নিজেরাই দল বেঁধে আত্মহত্যা করে।

তবে সব লেমিংরা কিন্তু মরতে যায় না। কেবল যে সংখ্যক লেমিং আত্মহত্যা করলে বাসস্থানের অভাব দূর হবে কিংবা খাবারের ঘাটতি পড়বে না, সেই সংখ্যক লেমিং আত্মহত্যা করে। কারা কারা আত্মহত্যা করবে সেটিও আগে থেকে সিদ্ধান্ত নিয়ে নেওয়া হয়।

এ ক্ষেত্রে প্রথমে রাজি হয় বয়স্করা। স্ত্রী পুরুষ নির্বিশেষে সবাই আত্মহত্যা করে। এটি যেন তাদের অলিখিত এক নিয়ম। যদি অধিকসংখ্যক লেমিংয়ের মরার প্রয়োজন হয় তবে অপেক্ষাকৃত বয়স্কদের হিসাব করা হয়। এই তালিকায় প্রথমে রাখা হয় পুরুষদের, এরপর নারীদের।

সত্যি, কী অদ্ভুত প্রকৃতির নিয়ম, তাই না?

মন্তব্য দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here